ফের অবসরের ইঙ্গিত দিলেন মেসি

| আপডেট :  ১০ জুলাই ২০২৪, ০৫:৫১  | প্রকাশিত :  ১০ জুলাই ২০২৪, ০৫:৫১


ফের অবসরের ইঙ্গিত দিলেন মেসি

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক


কানাডাকে হারিয়ে আরও একটি শিরোপার দ্বারপ্রান্তে আর্জেন্টিনা। সামনে আর মাত্র একটি ম্যাচ। জিততে পারলে কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন হবে আর্জেন্টিনা। ২০২১ সালের পর ফের ২০২৪ সালে কোপা জয়ের হাতছানি মেসিদের সামনে। আনন্দের এই মহারণের মধ্যেই মেসি ভক্তদের জন্য এল দুঃসংবাদ, কারণ ফের অবসরের ইঙ্গিত দিয়েছেন আলবিসেলেস্তে অধিনায়ক, বলেছেন– ‘এটি আমাদের শেষ লড়াই।’

আর্জেন্টাইন মহাতারকার অবসরের ইঙ্গিত শোনা যাচ্ছিল অনেক আগে থেকেই। তিনি নিজেও স্পষ্ট করে বিদায়ের সময় জানাচ্ছেন না। তবে তার কথার সূত্র ধরে গণমাধ্যম সেই ইঙ্গিত জোরালো করেছে সময়ে-সময়ে। আরও একবার কোপার ফাইনালে উঠে সেই আগুনে ঘি ঢেলেছেন মেসি।

তিনি বলছেন, ‘জাতীয় দল ও একটি গ্রুপ হয়ে আমরা যে অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি, সেটি উপভোগ করছি। আবারও ফাইনালে ওঠা সহজ বিষয় নয়, আবারও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার প্রতিযোগিতায় নামতে হবে। উপভোগও করছি, এর পাশাপাশি ফিদেও (দি মারিয়া), ওটার (নিকোলাস ওটামেন্দি) মতো আমিও মনে করছি, এগুলো (আমাদের) শেষ লড়াই।’

এদিকে দীর্ঘদিনের সতীর্থ আনহেল দি মারিয়া কোপা শেষে জাতীয় দলকে বিদায় বলবেন। ২০২৬ বিশ্বকাপে মেসিকে দেখার প্রত্যাশা করছেন অনেকেই। খোদ লিওনেল স্কালোনিই বলেছেন, মেসিকে বিশ্বকাপে দেখতে চায় তার দল। কিন্তু মেসি নিজে যা বললেন, তাতে খুব বেশিদিন জাতীয় দলের জার্সিতে দেখতে পাওয়া যাবে না তাকে।

এর আগে অবশ্য কঠিন সময় পার করেছেন মেসি এবং আর্জেন্টিনা দল। তিনটি কোপার (২০০৭, ২০১৫ ও ২০১৪) ফাইনাল এবং ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনালে তাদের স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল। সেই হতাশার সময় ছাপিয়ে একের পর এক জিতে চলেছে আকাশী-সাদা জার্সিধারীরা। এরপর থেকেই বেশ ফুরফুরে মেজাজে মেসি, বলছেন নিজের শেষ সময়টা উপভোগের কথা। সেই কথাই আজ ফের স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন। একইসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে দেওয়া পোস্টে লিখেছেন, ‘আর মাত্র একটি পদক্ষেপ বাকি।’

উল্লেখ্য, আগামী সোমবার কোপার ফাইনালে নামলে, মেসি টানা চতুর্থ ফাইনাল খেলতে যাচ্ছেন। ২০২১ কোপা ও ফিনালিসিমার পর ২০২২ বিশ্বকাপ, এবারের কোপা দিয়ে টানা চতুর্থ শিরোপা জয়ের বিরল রেকর্ডের কাছাকাছিও আর্জেন্টিনা।

বিবার্তা/জেআর/এমজে 

© BBARTA24.NET
Developed by : ORANGEBD
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত